মেনু নির্বাচন করুন

ভিজিডি

দোলারবাজার ইউনিয়ন-এর ভিজিডি  কার্যক্রম

বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল দেশ। দেশের পল্লী এলাকায় বসবাসরত অধিকাংশ মানুষই দারিদ্র পীড়িত। গ্রামের দরিদ্র, অসহায় ও অবহেলিত জনগোষ্ঠীর মধ্যে বিশেষ করে মহিলাদের অবস্থা অত্যন্ত শোচনীয় ও করুণ। তাই ঐ সমস্ত অসচ্ছল গরীব মহিলাদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচীর সহায়তায় বাংলাদেশ সরকার ভিজিডি কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এই প্রোগ্রামের মাধ্যমে গরীব মহিলাদের খাদ্য ও প্রশিক্ষণ সহযোগীতা প্রদান করা হয় যেটা চক্রানুসারে চলে। এক চক্রের মেয়াদ ২৪ মাস বা দুই বত্সর। এই কর্মসূচীর আওতায় সাধারণত চাল ও গম সাহায্য হিসাবে দেওয়া হয়ে থাকে। বর্তমানে দোলারবাজার ইউনিয়নে ১৪৮ জন ভিজিডি সেবা পাচ্ছেন।

বাস্তবায়নের কর্মকৌশল :
১. সংশ্লিষ্ট এলাকায় গরীব ও দুঃস্থ মহিলাদের সম্বন্ধে তথ্য সংগ্রহ এবং তার মাধ্যমে প্রকৃত সংখ্যা নিরূপন
২. গরীব ও দুঃস্থ মহিলাদের মধ্যে অসচ্ছল, অসহায় এবং দুর্বল অংশের অগ্রাধিকার তালিকা প্রণয়ন
 
ভিজিডি কার্ডধারী মহিলা বাছাইয়ের শর্তাবলী :
ভিজিডি কর্মসূচীতে অন্তর্ভুক্ত হতে হলে কমপক্ষে ৪টি শর্ত পূরণ করতে হবে, তবে, ভূমিহীন যেসব পরিবারের প্রধান মহিলা এবং কোন আয়ের উত্‍স নেই সেইসব পরিবার অগ্রাধিকার পাবে।
অর্ন্তভুক্তির শর্তাবলী
১. অতিমাত্রায় খাদ্য নিরাপত্তাহীন অর্থাত্ যে পরিবারের সদস্যরা প্রায় খাদ্যের অভাবে প্রতিদিন কোন না কোন বেলায় খাবার খেতে পারে না।
২. প্রকৃত অর্থে ভূমিহীন অর্থাত্ যাদের কোন জমি নেই অথবা ০.১৫ একরের কম জমির মালিক। এক্ষেত্রে, ভূমিহীন পরিবার অগ্রাধিকার পাবে।
৩. বসত বাড়ির অবস্থা (ঘরের ছাউনি, বেড়া, দরজা, খুঁটি ও পয়ঃনিষ্কাশন) খুবই নিম্ন মানের।
৪. যে সব পরিবার দৈনিক অথবা অনিয়মিত দিন মজুর হিসাবে অতি সামান্য জীবিকা নির্বাহ করে এবং সুনির্দিষ্ট কোন আয়ের উত্‍স নেই।
৫. পরিবার প্রধান মহিলা এবং কোন উপার্জনক্ষম পুরুষ সদস্য অথবা অন্য কোন আয়ের উত্‍স নেই।
 
অন্তর্ভুক্ত না করার শর্তাবলী :
উপরোক্ত যে কোন চারটি শর্ত পূরণ করলেও নিম্নোক্ত যে কোন একটি শর্ত বর্তমান থাকলে বিজিডি কার্ড পাওয়ার অযোগ্য বলে বিবেচিত হবেন:
১. মহিলা যিনি নির্ধারিত বয়সের অন্তর্ভুক্ত নন (১৮ থেকে ৪৯ বছর)।
২. মহিলা যিনি অন্য কোন খাদ্য বা অর্থ প্রদানকারী কর্মসূচী/প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত সদস্যা।
৩. মহিলা যিনি ২০০৩-২০০৬ সনের মধ্যে যে কোন চক্রে ভিজিডি কার্ডধারী ছিলেন।
৪. একটি পরিবারে কেবল একটি ভিজিডি কার্ড পাবে।
৫. নির্বাচিত মহিলাগণ বিনা শর্তে এবং বিনা মূল্যে ভিজিডি কার্ড পাওয়ার অধিকারী।
৬. কোন অবস্থাতেই তারা কোন সেবা প্রদানে বা মূল্য প্রদানে বাধ্য নহে।
 
বাস্তবায়ন নির্দেশিকা (সেপ্টেম্বর ২০০২) অনুযায়ী দায়িত্বপ্রাপ্ত ইউনিয়ন ভিজিডি কমিটি, সহযোগী এনজিও এবং ইউনিয়ন সদস্য/সদস্যা প্রদত্ত ভিজিডি মহিলার প্রাথমিক তালিকা পর্যালোচনা করবেন।
 
ভিজিডি কমিটি :
ইউনিয়ন ভিজিডি কমিটি:
১. ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান .....................................................................সভাপতি
২.ইউনিয়ন পরিষদের সকল সদস্য (তিনজন নির্বাচিত মহিলা সদস্যসহ) ........................... সদস্য/বৃন্দ
৩. ইউনিয়ন পরিবার পরিকল্পনা সহকারী (পরিবার কল্যাণ সহকারী/পরিদর্শক) ........................ সদস্য
৪. সহযোগী বেসরকারী সংস্থার (NGO) প্রতিনিধি (মহিলা অগ্রাধিকার প্রাপ্ত) ......................... সদস্য
৫. একজন সরকারি প্রাথমিক স্কুল শিক্ষক (মহিলা অগ্রাধিকার প্রাপ্ত) ..................................... সদস্য
৬. ইউনিয়ন ব্লক সুপার ভাইজার (উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা) ......................................... সদস্য
৭. ইউনিয়ন পশু সম্পদ সহকারী .......................................................................... সদস্য
৮. ইউনিয়ন স্বাস্থ্য সহকারী ............................................................................... সদস্য
৯. কমিউনিটি নিউট্রিশন অর্গানাইজার (যেখানে প্রযোজ্য)  ............................................... সদস্য
১০. কমিউনিটি নিউট্রিশন প্রমোটার (যেখানে প্রযোজ্য)  .................................................. সদস্য
১১. তিনটি ওয়ার্ড হতে চলমান ভিজিডি খাদ্য চক্রের তিনজন ভিজিডি মহিলা ........................... সদস্য
১২. ইউনিয়ন পরিষদের সচিব ..................................................................... সদস্য-সচিব
 
বিঃদ্রঃ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান যদি কোন কারণে অপসারিত হন বা পদত্যাগ করেন অথবা দায়িত্ব পালনে অক্ষম হন, তাত্‍ক্ষণিকভাবে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ভিজিডি কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালন করার জন্য একজন বিকল্প ব্যক্তির (ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য/সদস্যা) মনোনয়ন প্রদান করবেন।

 

বাছাই প্রক্রিয়া :
(ক) ইউনিয়ন ভিজিডি কমিটি বাছাই-এর শর্তাবলী, প্রক্রিয়া এবং নির্দেশনাসমূহ ইউনিয়নের প্রত্যেক ওয়ার্ড/গ্রাম পর্যায়ে অবহিত করার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। ইউনিয়ন ভিজিডি কমিটি ৩ থেকে ৪ সদস্য বিশিষ্ট ক্ষুদ্র দল এর মাধ্যমে প্রতিটি ওয়ার্ড/গ্রামে সকল গ্রামবাসীর উপস্থিতিতে জনসভার মাধ্যমে ভিজিডি মহিলা বাছাই প্রক্রিয়া স্বচ্ছভাবে অবহিত করবে। এই জনসভায় উপস্থিত সকলকে ভিজিডি কর্মসূচীতে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার জন্য উপযুক্ত হবার শর্তাবলী বিশেষভাবে অবহিত করা হবে (উপস্থিত সকলের মতামত ও সুপারিশ গ্রহণ করা হবে)। এই জনসভার মাধ্যমে সম্ভাব্য মহিলা এবং তাদের অবস্থান সম্বন্ধে প্রাথমিক ধারণা অর্জন সম্ভব হবে। এই ক্ষুদ্র দলের সদস্যগণ হবেন-সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের পুরুষ ও মহিলা সদস্য, সরকারি কর্মকর্তা এবং সংশ্লিষ্ট ভিজিডি এনজিও-এর প্রতিনিধি। যেসব এলাকায় ২০০৬ সালে কোন ভিজিডি এনজিও দায়িত্বপ্রাপ্ত নেই, সেসব এলাকায় স্থায়ী অধিবাসীদের মধ্য থেকে সম্মানিত ব্যক্তি (শিক্ষক/সমাজ উন্নয়ন কর্মী) অথবা ভিজিডি দলনেত্রী/পল্লী সমাজ নেত্রীদের (যে সকল ক্ষেত্রে প্রযোজ্য) ক্ষুদ্র দলের সদস্য হিসাবে গ্রহণ করা যাবে।
(খ) ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য/সদস্যাগণ ৩০শে নভেম্বর ২০০৬ এর মধ্যে সহযোগী এনজিওদের সক্রিয় সহযোগীতায় সম্ভাব্য মহিলাদের বাড়ি পরিদর্শন করে ভিজিডি কর্মসূচীর যোগ্য মহিলাদের প্রাথমিক তালিকা প্রস্তুত করবেন। এক্ষেত্রে উল্লেখ্য যে, সংরক্ষিত আসনের ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা সদস্যগণ ৫০% ভিজিডি মহিলার তালিকা প্রণয়ন করবেন এবং অবশিষ্ট ৫০% মহিলার তালিকা ৯টি ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য/সদস্যাগণ সংযুক্ত ছক-১ অনুযায়ী তৈরী করবেন। ছক-১ যৌথভাবে স্বাক্ষরিত হবে ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য এবং সহযোগী এনজিও দ্বারা। যেসব এলাকায় কোন ভিজিডি এনজিও দায়িত্বপ্রাপ্ত নেই, সেসব এনজিওর পরিবর্তে ইউনিয়ন পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা এই তালিকা তৈরী করতে কাজ করবে। উক্ত স্মারণীতে তালিকাভুক্ত ভিজিডি মহিলাদের মধ্যে অন্তত ৫০% সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের মহিলা সদস্যগণ কর্তৃক প্রস্তাবিত/নির্বাচিত হতে হবে।
(গ) প্রাথমিক তালিকার মধ্য থেকে অন্ততঃ ২৫% তালিকাভুক্ত মহিলার বাড়ি Random selection এর মাধ্যমে পুনঃ পরিদর্শন করবে "তালিকা যাচাইকরণ দল/কমিটি"। ইউনিয়ন ভিজিডি কমিটির মধ্য থেকে পূর্বে গঠিত "ক্ষুদ্র দল" এই "যাচাইকরণ দল" হিসাবে কাজ করবে। তবে এক্ষেত্রে উল্লেখ্য যে, প্রাথমিক তালিকা তৈরীর জন্য একটি ওয়ার্ডের দায়িত্বপ্রাপ্ত "ক্ষুদ্র দল" অন্য ওয়ার্ডের "যাচাইকরণ দল" হিসাবে কাজ করবে এবং কোন ক্রমেই একই ওয়ার্ডের জন্য "যাচাইকরণ দল" হিসাবে কাজ করতে পারবে না। এই যাচাইরণ দল তাদের প্রাপ্ত মন্তব্য/মতামত ছক-১এ শেষ কলামে প্রদান করতঃ যৌথ স্বাক্ষর করবে।
(ঘ) প্রাথমিক তালিকা যাচাইকরণের পর ইউনিয়ন ভিজিডি কমিটি সবগুলি ওয়ার্ডের যোগ্য মহিলাদের তালিকা একত্রিত করে ইউনিয়নের জন্য একটি চূড়ান্ত তালিকা তৈরী করবে। এই চূড়ান্ত তালিকাটি প্রস্তুত করতে হবে ছক-২ অনুযায়ী এবং এই স্মারণীতে যৌথভাবে স্বাক্ষর করবে ইউনিয়ন ভিজিডি কমিটি চেয়ারপারসন এবং সহযোগী এনজিও প্রতিনিধি/সরকারি কর্মকর্তা (যিনি প্রাথমিক তালিকা প্রস্তুতে সক্রিয়ভাবে সংশ্লিষ্ট ছিলেন)। ইউনিয়ন ভিজিডি কমিটি এই চূড়ান্ত স্বাক্ষরিত উপজেলা ভিজিডি কমিটির নিকট জমা দিবেন।
(ঙ) ইউনিয়ন হতে প্রাপ্ত ভিজিডি মহিলাদের তালিকায় কোন অনিয়ম পরিলক্ষিত হলে উপজেলা ভিজিডি কমিটি তালিকার সঠিকতা যাচাই-বাছাই করতে পারে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উপজেলা ভিজিডি কমিটির চেয়ারপারসন হিসাবে ২ অথবা ৩ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠনের মাধ্যমে এই যাচাই কাজ করতে পারে। এক্ষেত্রে, যাচাই প্রতিবেদন অবশ্যই যাচাই কমিটি দ্বারা স্বাক্ষরিত হবে এবং উপজেলা ভিজিডি কমিটির নিকট পেশ করতে হবে।
(চ) উপজেলা ভিজিডি কমিটি মহিলাদের প্রাথমিক তালিকা ও যাচাই কমিটির প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে ভিজিডি মহিলাদের পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রস্তুত করবে। উপজেলা ভিজিডি কমিটির চেয়ারপারসন হিসাবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এই পূর্ণাঙ্গ তালিকায় অনুমোদন প্রদান করবেন। এক্ষেত্রে, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ভিজিডি মহিলাদের পূর্ণাঙ্গ তালিকার প্রতি পাতায় স্বাক্ষর করবেন। উপজেলা ভিজিডি কমিটি এই তালিকা চূড়ান্ত করবে।
(ছ) উপজেলা ভিজিডি কমিটি প্রতিটি ইউনিয়নের ভিজিডি মহিলাদের চূড়ান্ত এবং স্বাক্ষরিত তালিকা সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নে প্রেরণ করবে। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন এই চূড়ান্ত এবং স্বাক্ষরিত তালিকা (ভিজিডি কার্ড নম্বর, নাম, পিতা/স্বামীর নাম এবং পূর্ণাঙ্গ ঠিকানা) ভিজিডি নথিপত্রে সংরক্ষণ করবে এবং ইউনিয়ন পরিষদের নোটিশ বোর্ডে প্রদর্শন করবে। তালিকাভুক্ত ভিজিডি মহিলাদের ভিজিডি কার্ড ও ভিজিডি কার্ডের প্রাপ্য সুযোগ-সুবিধার কথা ইউনিয়ন পরিষদ উক্ত মহিলাকে অবহিত করবে।
(জ) ইউনিয়ন ভিজিডি কমিটি প্রতি ভিজিডি মহিলাদের ভিজিডি কার্ড নির্ধারিত তারিখের মধ্যে বিতরণ নিশ্চিত করবে।

ভিজিডি কার্ড বিতরণ :
ইউনিয়ন পরিষদ পূর্ব নির্ধারিত তারিখে নির্বাচিত ভিজিডি মহিলাদের মাঝে আনুষ্ঠানিকভাবে ৩১ জানুয়ারি ২০০৭ এর মধ্যে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা/প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এর উপস্থিতিতে এই ভিজিডি রেশন কার্ড বিতরণ করবেন। কোন অবস্থায়ই ভিজিডি কার্ড বিতরণ না করে খাদ্য বিতরণ করা যাবে না।

বিশেষ বিবেচ্য বিষয় :
১. ভিজিডি কর্মসূচীর সার্বিক ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক ২০০২ সালে জারিকৃত বাস্তবায়ন নির্দেশিকা অনুসৃত হবে।
২. ভিজিডি মহিলাদের নির্বাচনী শর্তসমূহ পালনে অনিয়ম পরিলক্ষিত হলে বাংলাদেশ সরকার এবং বিশ্বখাদ্য কর্মসূচী ভিজিডি কেন্দ্রের খাদ্য সাহায্য স্থগিত বা বাতিল করার ব্যবস্থাদি গ্রহণ করবে।
৩. যে সকল উপজেলা মহিলা নির্বাচনের শর্ত এবং প্রক্রিয়া অত্যন্ত সঠিকভাবে অনুসরণ করবে, সে সকল উপজেলা বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচী কর্তৃক প্রদত্ত পুরস্কারের (award)  জন্য বিবেচিত হবে।
৪. সহযোগী এনজিও কর্তৃক প্রদত্ত উন্নয়ন প্যাকেজ সেবার উপর আলাদাভাবে মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর কর্তৃক পরিপত্র জারি করা হবে।
৫. কয়েকটি ইউনিয়নে পাইলট বেসিসে লটারী পদ্ধতির মাধ্যমে ভিজিডি মহিলার চূড়ান্ত নির্বাচন করা হবে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট উপজেলাকে পৃথকভাবে অবহিত করা হবে।

 

সচরাচর জিজ্ঞাসা

-

প্রশ্ন ১:ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে কি কি খাদ্য সহায়তা কর্মসূচী বাস্তবায়িত হয়? 

উত্তর:  ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে কাজের বিনিময়ে খাদ্য,ভিজিডি,ভিজিএফ,টি আর, আরএমপি কর্মসূচী বাস্তবায়িত হয়।

প্রশ্ন ৩: ভিজিডি সুবিধা পাবেন কোন মহিলারা? 

উত্তর: ভূমিহীন অথবা ০.৫ একরের কম জমির মালিক,আয় অনিয়মিত,মাসিক আয় ৩০০টাকার কম,দিনমজুর বা সাময়িক মজুর এবং আয় করার সম্পদ নেই এমন মহিলারা।

দোলারবাজার ইউনিয়নের ভিজিডি উপকারভোগীদের নামে তালিকা।

মোট ২০৫ টা